.:সড়ক যোগাযোগ সর্ম্পকিত যে কোন সমস্যার তথ্য প্রদান করুন:.    Back to Home | Search by Id 
Back to Home Page
 


Your IP Address: 3.234.245.121
Your Client IP Address: 3.234.245.121
Your Server IP Address: 3.234.245.121
Your Browser: CCBot/2.0 (https://commoncrawl.org/faq/)

সড়ক যোগাযোগ সর্ম্পকিত যে কোন সমস্যার তথ্য প্রদান করুন
প্রদানকারীর নাম : *

ফোন নম্বর: *


ই-মেইল : *


স্হান, জেলা : *

বর্ণনা : *

সমস্যার/ক্ষতিগ্রস্থ স্থানের ছবি (যদি থাকে):
(Max size : 2MB)

আরো ছবি দিন


কোড নম্বরটি লিখুন



তথ্য প্রদানে কোনো কারিগরী ত্রুটির সম্মুখীন হলে যোগাযোগ করুন - ৯৫৭৫৫২৭ এই নম্বরে, E-mail : programmer1@rthd.gov.bd

 
ওয়েবসাইটের মাধ্যমে প্রাপ্ত সড়ক যোগাযোগ সর্ম্পকিত তথ্য
Print  
9723. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : Bogra, Dhaka,
তারিখ ও সময় : 11 Feb, 2020 04:52:11
বর্ণনা :

তারিখঃ ১১ ফেব্রুয়ারি ২০২০।


 


মহোদয়,


আসসালামু আলাইকুম


আমি গত ০৯ জানুয়ারী ২০২০ তারিখ ০৭০০ ঘটিকায় দিনাজপুর মেডিক্যাল কলেজে গমনের প্রাক্কালে বগুড়া হতে দিনাজপুরগামী বিআরটিসি বাস কাউন্টার হতে ০৪টি টিকেট ক্রয় করি। যথাসময়ে বাস কাউন্টার আগমন করার পর দেখি বাসটি সিটি সার্ভিসের যার ফলে লাগেজ বক্স নেই বলেল চলে। পরবর্তীতে বাসের ভিতরে সকল যাত্রীদের (মেডিক্যাল কলেজের ছাত্র/ছাত্রীসহ) লাগেজ ও মেডিক্যালের প্রয়োজনীয় দ্রব্য সামগ্রীর ব্যাগ রাখা হয়। দিনাজপুরের উদ্দেশ্যে বাসটি গমন করার পর কন্টাক্টর (নাম জানা নেই) ও হেলপার মিঃ বাবু নামে ০২জন ব্যক্তি যাত্রীদের লাগেজ/ব্যাগ নিয়ে হিনমন্যতা প্রকাশ করে বলে যে, এগুলো কুরিয়ার সার্ভিসে না দিয়ে বাসে কেন নিয়েছেন। এছাড়াও তারা ব্যাগগুলো টেনে হিছরে পিছেন জটলা করে রাখে। এ বিষয়ে কথা বললে তারা অন্য বাসে যেতে বলে। পরবর্তীতে তারা দিনাজপুর যেতে রাস্তায় কমপক্ষে ৩০/৪০ বার থামিয়ে লোক দাড়িয়ে গাধাগাদি করে লোকাল সার্ভিসের চেয়ে নিম্নমানের সার্ভিস প্রদান করতে থাকে এ বিষয়ে প্রতিবাদ করতে গেলে কন্টাক্টর (নাম জানা নেই) ও হেলপার মিঃ বাবু  আমাদেরকে বাস হতে নেমে দিতে উদ্দত হয় এবং বলে যে, এইটা বিআরটিসি বাস আমরা যেভাবে ইচ্ছা চালাবো কেউ কিছু করতে পারবে না। যান যেখানে ইচ্ছা রিপোট দেন। আমাদের কিছুই করতে পারবেন না। আমি মোবাইল ফোনে ছবি/ভিডিও করতে চাইলে তারা আমাকে আমার পরিবারের সামনে শারিরিক ভাবে আঘাত করতে উদ্ধত হয় এবং আমার মোবাইল ফোন ছিনিয়ে নেয় (নামার সময় মোবাইল ফিরেয়ে দেয়। তারা বলে এর চেয়ে আমাদের অনেক দামী ফোন ও টাকা পয়সা কি করতে পারবেন যান, পারলে কিছু করে দেখায়েন।


 


মহোদয়, বিআরটিসি বাসের গুণগত মান ধরে রাখার জন্য এ বিষয়ে আপনার প্রয়োজনীয় সদয় দৃষ্টি সহ এহেন অস্যৎ কর্মচারীদের বিরুদ্ধে প্রশাসনিক/ দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি গ্রহনে সদয় আঞা হয়।


 


 


বাংলাদেশের সাধারণ জনগনের পক্ষ হতে


বিনীত নিবেদক


 


মোঃ সুজন মাহমুদ


মিরপুর-১৩, ঢাকা-১২১৬


০১৭৫৬-১৭০৭৩৩



9721. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : দিনাজপুর
তারিখ ও সময় : 03 Feb, 2020 06:04:31
বর্ণনা :

আমি নীলফামারী জেলার সৈয়দপুরের একজন বাসিন্দা। আমার কর্মস্থল দিনাজপুরের হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ে। আজ সকালে অফিস আসার সময় আমি যে গাড়ীতে আসি সেটার নম্বর রংপুর জ-0040। গাড়ীটি অনেক পুরাতন এবং গাড়ীটি রংপুর থেকে গেটলক হয়ে আসতেছে। এই রাস্তার গেটলক গাড়ী গুলো খুব দ্রুতগামী এবং সময় নিয়ে চলে তাই গাড়ীগুলোতে খুবই ভীড় হয়। রংপুর থেকে আসার সময় গাড়ীর টায়ার পাম্পচার হয় কিন্তু তারা সঙ্গে সঙ্গে মেরামত না করে যাত্রী নিয়ে সৈয়দপুর আসে। আমি সৈয়দপুর টার্মিনাল হতে উঠে বাস ছাড়ার কিছুক্ষণ পর এক যাত্রীর মুখে শুনে জানতে পারি গাড়ীর টায়ার পাম্পচার হয়েছে যে কোন সময় দূর্ঘটনা ঘটতে পারে। আমার সঙ্গে আমাদের বিশ্ববিদ্যালয়ের একজন প্রফেসর ছিলেন উনি রংপুর থেকে আসে উনার কাছে জানতে পারলাম উনি আগের গাড়ীতে রংপুর মেডিকেল মোড় থেকে উঠছিলেন কিন্তু সিও বাজার এসে ঐ গাড়ীর স্টারিং কাজ না করার কারনে উনি ঐ গাড়ী থেকে নেমে একটা প্রাইভেট গাড়ীতে এই পর্য ন্ত এসেছেন। পড়ে বাবেয়ায় এসে গাড়ীর চাকা ঠিক করতে চাইলে আমার মত অনেকে  অন্য গাড়ীতে যাওয়ার জন্য টাকা ফেরত চাওয়ায় তারা যাত্রীদের উপর চড়াও হয় এবং অনেক উচ্চবাক্য ব্যবহার করে এবং বাস স্ট্যান্ড-এ দাড়িয়ে থাকা দুটি বাসকে তাড়াতাড়ি ভাগিয়ে দিয়ে একটা কৃত্রিম সংকট সৃষ্টি করে।  অগ্যতায় গাড়ী মেরামতের অপেক্ষায় থাকতে হয় এবং শেষ পর্যন্ত 45 মিনিট পর আমার গন্তব্যে পৌচ্ছায়।


আমার অভিযোগ সরকারের এত কড়া নজরদারির পরেও কিভাবে এ ধরনের গাড়ী রাস্তায় চলাচল করে তা কতৃপক্ষের উচচ মহলকে দেখার জন্য অনুরোধ করছি।



9720. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : কেশারপাড়,সেনবাগ,নোয়াখালী
তারিখ ও সময় : 01 Feb, 2020 21:13:36
বর্ণনা :

পত্রিকায় প্রকাশিত বিজ্ঞত্পি
অনেকদিন যাবত 02 নং কেশারপাড় ইউনিয়ন সংলগ্ন কেশারপাড়-কুতুবেরহাট-আদুল্যাহপুর রাস্তাটি মেরামতের অভাবে পড়ে আছে ।যার কারনে গ্রামবাসীর গুরুত্বপূর্ণ সময় অপচয় হচ্ছে।প্রায় 5-10 বছরের মতো রাস্তা ভাঙ্গা থাকার কারনে জনগণের অবস্থা হয়ে পড়েছে দুর্বিসহ।রাস্তাটির জন্য টেন্ডার আসার পরেও অজানা কারনে টেন্ডার বাতিল হয়ে যায়।জনগনের দুর্বিসহ অবস্থার কথা বিবেচনা করে এই বিষয়ে ব্যবস্থা নিতে নোয়াখালী সড়ক বিভাগের দৃষটি  আকর্ষণ করছি।   



9719. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : গৌরিপুর, কুমিল্লা
তারিখ ও সময় : 30 Jan, 2020 15:37:51
বর্ণনা :

গৌরিপুর-ঢাকা রুটে বিআরটিসি বাসের কাউন্টারে সম্পূর্ণ ভাড়া পরিশোধ করেও টিকেট পাওয়া যায় না। বাস বিরতিহীনভাবে চলার কথা থাকলেও তা জায়গায় জায়গায় থামিয়ে যাত্রী উঠানামা করায়। প্রতিবাদ করায় আগ্রসী হয়ে উঠে। গাড়ি নম্বর ৫১৭৫।   


জবাব :

See Reply

যাত্রাবাড়ী বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রনে গৌরিপুর-গুলিস্থান রুটে গুলিস্থান কাউন্টার হতে কাচপুর ব্রিজ পযন্ত একাধিক স্থানের যাত্রীর টিকিট বিক্রয় করা হয়। নির্ধারিত সিটের বিপরীতে এবং কাউন্টার হতে বাসের সিট অনুযায়ী টিকিট বিক্রয় করা হয়। নির্ধারিত আসনের অতিরিক্ত টিকিট বিক্রয় করা হয় না। টিকিটধারী যাত্রীদের স্বার্থে গুলিস্থান হতে কাঁচপুর পযন্ত যাত্রী উঠানো হয়।প্রত্যেক কাউন্টারে ভাড়ার টাকা পরিশোধের বিপরীতে টিকেট প্রদান বাধ্যতামুলক থাকা সত্বেও উক্ত যাত্রী কেন এবং কি কারনে টিকেট ছাড়া বাসে ভ্রমন করেছেন বিষয়টি বোধগম্য নয়।গৌরিপুর-গুলিস্থান রুটে চেক পয়েন্ট থাকার কারনে টিকেট বিহীন ভ্রমন কোন ভাবেই সম্ভব নহে।


9717. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : মোহাম্মাদপুর, ঢাকা
তারিখ ও সময় : 21 Jan, 2020 11:19:57
বর্ণনা :

আমি মোহাম্মাদপুরের একজন বাসিন্দা, আমি দীর্ঘ দিন যাবত বি আর টি সি দোতালা বাসে যাতায়াত করতেছি এবং মোহাম্মাদপুর বাস ডিপো থেকে মহাখালি পর্যন্ত ১০ টাকা ভাড়া নিচ্ছে, কিন্তু গত প্রায় ৭ দিন যাবত হটাত বাস ভাড়া বাড়িয়ে দেয় যার ফলে মহাখালি পর্যন্ত ভাড়া নেয় ১৪ টাকা প্রায় ৪০% ভাড়া বাড়িয়ে দেয় যার কোন সুনির্দিষ্ট কারন আমাদের জানা নেই, আমাদের জানা মত সরকার বাসের জালানির দাম বাড়ায় নি এবং ভাড়া ও বাড়ায় নি তাছাড়া মোহাম্মাদপুর বাস ডিপো ছাড়া অন্য কোন বাস ডিপোর বাসের ভাড়া বাড়ায় নি শুধু মোহাম্মাদপুর বাস ডিপো তাদের বাস ভাড়া বাড়িয়েছে।  উক্ত বিষয়ে উর্ধতন কর্তিপক্ষের সহযোগিতা কামনা করছি। 


জবাব :

See Reply

মোহাম্মদপুর বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রনে পরিচালিত মোহাম্মদপুর টু কুড়িল বিশ্বরোড রুটের সম্মানিত যাত্রীগনের নিকট হতে মোহাম্মদপুর ডিপোর কাউন্টার হতে মহাখালী রেলগেইট পর্যন্ত ভাড়া ১০/- টাকা, তিতুমির কলেজ/গুলশান-১ পর্যন্ত ভাড়া ১৫/- টাকা নেয়া হয়। কোন যাত্রী টিকেটে উল্লেখিত গন্তব্য অতিক্রম করে পরবর্তী স্টপেজে পৌছালে অতিরিক্ত ৫/- টাকা ভাড়া আদায় করা হচ্ছে। মোহাম্মদপুর বাস ডিপোর কোন রুটের বাস ভাড়া বৃদ্ধি করা হয়নি, সম্মানিত যাত্রী সাধারনের গন্তব্যের তারতম্যের কারনে ভাড়া কমবেশী হয়ে থাকে।


9714. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : মিরপুর, ঢাকা
তারিখ ও সময় : 20 Jan, 2020 05:57:31
বর্ণনা : মিরপুর হতে দোহার,ঢাকা রুটে কোন বাস সার্ভিস চালু নেই। মিরপুর বিআরটিসি বাস ডিপো. (মিরপুর-১২) হতে শ্রীনগর হয়ে দোহার,ঢাকা পযর্ন্ত বিআরটিসি বাস চালু করার জন্য সবিনয় অনুরোধ জানাচ্ছি
জবাব :

See Reply

ইত:পূর্বে মিরপুর বাস ডিপোর নিয়ন্ত্রণে গুলিস্তান-দোহার রুটে দাইয়্যু এসি বাস সার্ভিস চালু করা হয়েছিল। বাস পরিচালনাকালে রুটের বিভিন্ন সমস্যা যেমন-রুটের প্রশস্ততা কম হওয়ায় বিপরিতদিক থেকে আগত গাড়ি/ভ্যান/অটো ইত্যাদি পাস করতে বিঘ্ন ঘটে, কালভার্টের উচ্চতা বেশী থাকায় গাড়ির বাম্পার ফেসে যায় এবং যাত্রী সমাগম কম থাকার কারণে  রুটটি লাভজনক না হওয়ায় বাস পরিচালনা বন্ধ করে দেয়া হয়েছে। তাছাড়া, মিরপুর-মতিঝিল রুটে মেট্রোরেলের নির্মাণ কাজ চলমান থাকায় মিরপুর-পল্টন এবং পল্টন-কদমতলী রুটে সার্বক্ষণিক যানজট লেগেই থাকে। সে কারণে মিরপুর-শ্রীনগর-দোহার বাস পরিচালনা করা হলে দৈনিক নির্ধারিত ট্রিপ ও রাজস্ব অর্জন করা সম্ভব হবে না, বিধায় বর্তমানে রুটটি বন্ধ আছে। তবে বর্ণিত সমস্যার সমাধান হলে এ রুটে বাস পরিচালনা করা হবে।


9713. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : কাকন হাট,রাজশাহী
তারিখ ও সময় : 19 Jan, 2020 15:40:35
বর্ণনা : মাননীয় মন্ত্রী মহোদয়
রাজশাহী জেলার কাশিয়াডাঙ্গা থেকে আমনুরা পযন্ত রাস্তার বৃদ্ধির কাজ চলিতেছেে।মোট ৩৬ কিমি রাস্তাকে ১২ কিমি করে বিভক্ত করা হয়ে।
দ্বিতীয় ভাগ

রাস্তা নির্মাণ কাজে অনিয়ম। রাস্তা নির্মাণ কাজে পাথরের পরিমাণ এক ভাগ এবং বালির পরিমাণ 4থেকে5 ভাগ ব্যবহার করা হচ্ছে। কাকনহাট থেকে হাফ কিলো মিটার দূরে প্রমাণ পাওয়া যাবে। পাথরগুলোর দৈর্ঘ্য 2 থেকে 3 ইঞ্চি । রাস্তা বৃদ্ধির পরিমাণ ৬ফিট এবং আগে ১২ ফিট মোট 18 ফিট হওয়ার কথা থাকলেও সে ক্ষেত্রে 17 ফিট8 থেকে 7 ইঞ্চ হচ্ছে এবং ব্রীজ-কালভার্ট নির্মাণ কাজে মাল মাল ব্যবহার করা হচ্ছে না।
তৃতীয় ভাগ
তৃতীয় ভাগে রাস্তা বৃদ্ধির কাজ চলিতেছে। বৃদ্ধি ৬ফিট হওয়ার কথা থাকলে
ও সে ক্ষেত্রে বৃদ্ধির পরিমাণ অনেক কম এবং গভীরতা ৩ফিট হওয়ার কথা থাকলেও সে জগতের ১থেকে ১ ১/২ গভীরতা করা হচ্ছে এবং নিম্নমানের ইট বালু ব্যবহার করা হচ্ছে। এর প্রমাণ নারায়নপুর ললিত নগর অংশে প্রমাণ আছে
রাস্তা নির্মাণ কাজে অনিয়ম এর বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেওয়ার জন্য মাননীয় মন্ত্রী মহোদয় এবং দায়িত্বপ্রাপ্ত কর্মকর্তাদের কাছে আকুল আবেদন যে সময় থাকতে দ্রুত ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য অনুরোধ করতেছি এবং একটি দুর্ঘটনা সারা জীবনের জন্য কান্না এ রাস্তা নির্মাণ কাজে অনিয়ম হওয়ার জন্য ভবিষ্যতে যে একটি দুর্ঘটনা ঘটবে না তার কোনো সদোত্তর কারো কাছে জানা নেই তাই সড়ক নির্মাণ কাজে যথাযথ ব্যবস্থা গ্রহণ করার জন্য সকলের কাছে আকুল আবেদন করি
জবাব :

See Reply

১ম ভাগ

এই অংশে আবেদনকারী কোন অভিযোগ করেননি।

দ্বিতীয় ভাগ

বেইজ টাইপ-১ এর আওতায় পাথর ও বালুর নির্ধারিত অনুপাতে নিয়ন্ত্রণ করে কাজ করা হয়েছে এবং রাজশাহী ফিল্ডর্ ল্যাবরেটরী এবং ঠিকাদারের ল্যাবে নিয়মিত অনুপাত ও গ্রেডেশন পরীক্ষা করা হয়। এতে করে ৫ ভাগ বালুর সাথে ১ ভাগ পাথর মেশানোর অভিযোগ অমূলক ও অসত্য। এবং পাথরের সাইজ ২/৩ ইঞ্চি যা সত্য নয়।

সড়কের প্রশস্থতা ৫.৫ মিটার করে নির্মাণ করা হচ্ছে, যা যেকোন সময়ই মাপা সম্ভব। ফলে সড়কের প্রশস্থতা ১৭ ফুট ৭ ইঞ্চি করা হচ্ছে এই অভিযোগ সঠিক নয়।

তৃতীয় ভাগ

বিদ্যমান ১২ ফুটের প্রশস্থতার সড়কের উভয় পার্শ্বে ৩ ফুট করেই সড়ক প্রশস্থতা করা হয়েছে এবং আইএসজি ৩০০ মিটঃমিঃ এবং সাব-বেইজ ২৫০ মিঃমিঃ সংস্থাপন রেখে প্রশস্থতা করণ করা হচ্ছে। ফলে ৬ ফুটের কম প্রশস্থতা ও ৩ ফুট গভীরতার যে অভিযোগ উত্থাপন হয়েছে তা সঠিক নয়।

বর্ণিত অভিযোগে ললিত নগর নারায়নপুর অংশে ঠিকাদারী প্রতিষ্ঠান এখনো কাজটি শুরু করে নাই ফলে প্রতিয়মান হয় যে উদ্দেশ্যে প্রণোদিতভাবে অভিযোগসমূহ উত্থাপন করা হয়েছে। 


9712. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : Uttara, Dhaka
তারিখ ও সময় : 19 Jan, 2020 09:40:43
বর্ণনা :

Uttara to Farmget BRTC বাদে অন্য  কোনো বাস হাফ ভাড়া রাখে না।আমরা ছাত্ররা নিয়মিত হয়রানির শিকার হই। এটার সমাধান চাই।  


জবাব :

See Reply

আপনার অভিযোগের জন্য ধন্যবাদ।

 

ছাত্রদের হাফ ভাড়া সংক্রান্ত কোনো আইন বা বিধি নেই। বাসে ছাত্রদের হাফ ভাড়া আদায় বাস মালিকের এখতিয়ার।

 

ধন্যবাদ


9711. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : Dhaka
তারিখ ও সময় : 19 Jan, 2020 07:59:53
বর্ণনা :

Sir i am an student of daffodill International University.The only way to go to my campus there has an one bus Bkash Paribahan.From bishawroad to dhanmondi the fair is 40 tk.As an student the student pass will be 20 tk. But they are not accept it they took 40 tk from the students.Whenever we ask the checker they always tell us that there is no studnt pass.Please do something about that.


Thank You


জবাব :

See Reply

 

আপনার অভিযোগের জন্য ধন্যবাদ।

 

ছাত্রদের হাফ ভাড়া সংক্রান্ত কোনো আইন বা বিধি নেই। বাসে ছাত্রদের হাফ ভাড়া আদায় বাস মালিকের এখতিয়ার।

 

ধন্যবাদ


9706. প্রদানকারীর বিবরণ (নাম,ফোন ইত্যাদি) : মতামত প্রদানকারীর পরিচয় প্রকাশ করা হচ্ছে না।
ক্ষতিগ্রস্থ স্হান, জেলা : Nagarpur manikgonj to dhaka
তারিখ ও সময় : 17 Jan, 2020 04:57:22
বর্ণনা :

Jotro totro counter batito jatri utano. 


জবাব :

See Reply

আপনার অভিযোগটি সুস্পষ্ট নয়। অনুগ্রহ করে বিস্তারিত উল্লেখপূর্বক পুনরায় দাখিলের জন্য অনুরোধ করা হলো।